৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে কবরস্থানের গাছে ঝুলন্ত মানব কঙ্কাল উদ্ধার, নীচের অংশ খেয়ে ফেলেছে কুকুর-শিয়াল

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৬:৫৫ অপরাহ্ণ , ২৩ মার্চ ২০২২, বুধবার , পোষ্ট করা হয়েছে 9 months আগে

সরাইলে কবরস্থানের গাছে ঝুলন্ত মানব কঙ্কাল উদ্ধার, নীচের অংশ খেয়ে ফেলেছে কুকুর-শিয়াল

এম এ করিম সরাইল( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে কবরস্থানের গাছে ঝুলন্ত আবু তাহের (৭৫) নামের এক বৃদ্ধের মরদেহের কঙ্কাল উদ্ধার করেছেন পুলিশ।

আজ বুধবার(২৩ মার্চ) দুপুরে উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নের বারপাইকার গ্রামের উত্তরপাড়া কববস্থান থেকে বৃদ্ধের এই কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়।
পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে কয়েকজন শিশু হারানো ছাগলের খোঁজে কবরস্থানের ভেতরে গিয়ে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় কঙ্কাল দেখে দৌড়ে চলে আসে। মুহুর্তে খবরটি গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। পরে গ্রামবাসী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে।

পুলিশ বলছেন, মরদেহটি অন্তত ২০-২৫ দিন আগের।এর নিচের অংশ শিয়াল কুকুর খেয়ে নষ্ট করে ফেলেছে। ওপরের অংশটুকুও কঙ্কাল হয়ে গেছে। তাই তাকে চেনা যাচ্ছে না।

উদ্ধারকৃত মরদেহের কঙ্কালটি উপজেলার চুন্টা ইউনিয়নের নরসিংহপুর গ্রামের হাজি কালা মিয়ার মিয়ার পুত্র আবু তাহের(৭৫) এর বলে সনাক্ত করেছেন স্বজনরা।

বৃদ্ধের ছোট ভাই ফারুক মিয়া বলেন, আবু তাহের আমার বড় ভাই। গত ২৮ ফেব্রুয়ারী তিনি বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন। ৭মার্চ আমরা সরাইল থানায় হারানো ডায়েরি করি। দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন। আজ সকালে বারপাইকা কবরস্থানে একটি লাশ পাওয়া গেছে শুনে আমরা দৌড়ে আসি। এসে দেখি আমাদের বড় ভাই আবু তাহের । দাঁত, জামা ও জুতা দেখে আমরা তাঁকে চিনতে পারি।’
এ ব্যপারে সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, ২৮ ফেব্রুয়ারী সকালে খাওয়া দাওয়া শেষে মাঠে জমি দেখার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন আবু তাহের। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এ ব্যাপারে তার ছেলে সালমান ৭মার্চ সরাইল থানায় একটি জিডি করেন। মানসিক সমস্যা থেকেই তাহের মিয়া নিখোঁজ হয়ে কবরস্থানে এসে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। লাশটির নীচের অংশ শিয়াল কুকুর খেয়ে ফেলেছে। উপরের অংশও বিকৃত হয়ে গেছে। তাই ডিএনএ টেস্ট করানো হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

December 2022
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  
আরও পড়ুন