১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগ দলীয় প্রধানসহ নেতা-কর্মীদের ছবিযুক্ত ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৯:১১ অপরাহ্ণ , ৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 years আগে

received_808897369828723

সরাইলে বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগ দলীয় প্রধানসহ নেতা-কর্মীদের ছবিযুক্ত ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ

এম এ করিম সরাইল নিউজ ২৪.কমঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগ দলীয় প্রধানসহ অন্যান্য নেতা-কর্মীদের ছবিযুক্ত ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। উপজেলার পানিশ্বর ইউনিয়নের টিঘর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যপারে টিঘর গ্রামের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মী মোঃ ইসকান্দার মির্জা ও মোঃ খুরশেদ আলম বলেন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। বঙ্গবন্ধু ও আমাদের দলীয় প্রধানের ছবি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি মহোদয় ও সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুর এর ছবি যুক্ত ব্যানারে স্থানীয় ওয়ার্ডের সর্বস্থরের জনগণকে ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়েছি। ব্যানারে আমাদের দু’জনের নাম ও ছবিসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ আব্দুর রউফ ও মোঃ সিরাজ মিয়ার নাম ও ছবিযুক্ত রয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই দুই কর্মী আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ব্যানারটি টানানো থাকলেও গতকাল রাতে কে বা কাহারা ব্যানারটি ছিঁড়ে ফেলেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এ ব্যপারে পাবিশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও পানিশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ দ্বীন ইসলাম বলেন ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মীরা আমাকে অবগত করেছেন। আমি খোজঁখবর নিয়ে দেখেছি ব্যানারটি কে বা কাহারা ছিঁড়ে ফেলেছে। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বিষয়টি আমাদের দলীয় উর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ ও সরাইল থানার ওসিকে আমি অবগত করেছি। এ কাজে জড়িতদের দ্রুত খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্থি দাবি করছি।

এম এ করিম
সরাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
তারিখঃ ৩০-০৭-২০২১
মোবাইলঃ ০১৭২০১০৮৬১

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

May 2024
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
আরও পড়ুন