১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চালকের গলায় ছুরিকাঘাত, অটোরিকশা ছিনতাই

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ , ১০ অক্টোবর ২০২০, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

সরাইল নিউজ ২৪.কমঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া  সরাইলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চালকের গলায় ছুরিকাঘাত করে ব্যাটারি চালিত একটি অটোরিকশা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। মুমূর্ষু অবস্থায় চালক আবদুল হাই (১৩) কে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। শুক্রবার (৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে মহাসড়কের  সরাইল উপজেলার ইসলামাবাদ এলাকায় এই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। আহত চালক আবদুল হাই সরাইল উপজেলা সদরের স্বল্প নোয়াগাঁও এলাকার দরিদ্র হেলাল মিয়ার পুত্র।

এ ঘটনায় সরাইল উপজেলা ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা শ্রমিক ও মালিক সংগঠনের নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ বাক্কি মিয়া অভিযোগ করে বলেন, গত দেড়মাস আগে মহাসড়কের সেই স্থানে এমন আরেকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। সেই ঘটনায় চালক নেকবর মিয়াকে ছুরিকাঘাত করা হলেও আশপাশের লোকজনদের কারণে অটোরিকশা নিতে পারেনি ছিনতাইকারীরা। সরাইল বড্ডাপাড়ার আলী আকবরের ছেলে সেই চালক বর্তমানে ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছে। শুক্রবার একই জায়গায় ছিনতাইয়ের শিকার হয় চালক আবদুল হাই। শ্রমিক নেতা বাক্কি মিয়া বলেন, সন্ধ্যার পর যথাসময়ে পুলিশ মহাসড়কে ডিউটিতে না যাওয়ার ফলে এমন ঘটনা ঘটছে। তিনি দায়ীদের সনাক্ত সহ ছিনতাই হওয়া অটোরিকশা উদ্ধারে পুলিশের প্রতি জোর দাবি জানান। পুলিশ ও ভুক্তভোগী চালকের লোকজন সূত্রে জানা গেছে, অটোরিকশাটিতে দুইজন অজ্ঞাত ছিনতাইকারী যাত্রীবেশে ছিল। ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাটি মহাসড়কের সেই স্থানে পৌঁছামাত্র যাত্রীবেশে থাকা ছিনতাইকারীরা চালক আবদুল হাইকে গলায় ছুরিকাঘাত করে অটোরিকশা নিয়ে সিলেটের দিকে চলে যায়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় মহাসড়কের ফুটপাতে পড়ে থাকে আবদুল হাই। সরাইল সদরের কুট্টাপাড়া এলাকার ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালক মিলন মিয়া এ অবস্থা দেখে রক্তাক্ত অবস্থায় আবদুল হাইকে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।
সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে দায়িত্বে থাকা ডাঃ নুসরাত পারভীন সিরাজী জানান, আবদুল হাই নামে ১৩ বছর বয়সী ছেলেটির গলায় ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। শ্বাসনালী না কাটলেও গলার বিভিন্ন অংশ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনবরত রক্ত বের হচ্ছিল; কোনো অবস্থাতেই রক্ত বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। তাই তাকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকায় নিয়ে গেছেন স্বজনরা। আমরা সাধ্যমতো প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে নেয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি আমরা জেনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং হাসপাতালে আহত চালকের খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবগত করেছি। লোকাল থানা এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেবে; আমরা (হাইওয়ে) থানাপুলিশকে এ ব্যাপারে সহযোগিতা করবো। সরাইল থানা অফিসার ইনচার্জ এ এম এম নাজমুল  আহমেদ জানান, বিষয়টি জেনে আমি ঘটনাস্থলে ও হাসপাতালে তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠিয়েছি। আমরা বিষয়টি নিয়ে তৎপর রয়েছি। তবে হাইওয়ে থানার ওসি এ বিষয়ে কার্যত পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। কারণ বিষয়টি তাদের দায়িত্বের মধ্যে বেশি পড়ে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
আরও পড়ুন