২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে সরকারি স্কুলের মাঠে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ, খেলাধূলা থেকে বঞ্চিত শিশু শিক্ষার্থীরা, দেখার কেউ নেই!

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ২:২৮ অপরাহ্ণ , ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার , পোষ্ট করা হয়েছে 5 years আগে

FB_IMG_1568708718028

সরাইল নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্কঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নের শাহজাদাপুর পশ্চিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের খেলার মাঠে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি অর্থের লোভে শিশু শিক্ষার্থীদের ঐ মাঠে খেলা-ধূলা করা থেকে বঞ্চিত করছেন। অভিভাবকদের মধ্য থেকে বিষয়টি মৌখিকভাবে উপজেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট দফতরকে একাধিকবার জানালেও রহস্যজনক কারনে তেমন কোনো প্রতিকার হচ্ছে না বলে স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ।
সরেজমিন দেখা যায়, বিদ্যালয়টির মাঠে পানি থৈ থৈ করছে যা দেখে প্রথমে মনে হবে একটি বিশাল পুকুর। দীর্ঘ দিন ধরে এতে মাছ চাষা হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, শাহজাদাপুর গ্রামের আজিজুল মিয়ার নেতৃত্বে মাসুক মিয়া, জাফর আলীসহ কয়েকজন মিলে বিগত প্রায় চার বছর যাবত বিদ্যালয়ের এই খেলার মাঠে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছেন ক্ষমতার দাপটে। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. দুলাল মিয়া ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোছা. ইয়াছমিন বেগম এই খেলার মাঠ ওই মাছ চাষীদের কাছে ইজারা দিয়ে প্রতিবছর টাকা কামিয়ে যাচ্ছেন। মাঠের পানিতে ডুবে ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর মারা যায় শাহজাদাপুর গ্রামের মো. মনু পাঠানের পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে তিশা। মৃত তিশার মাতা মারুফা খানম জানান, বিদ্যালয়ের মাঠে ছেলে-মেয়েরা খেলাধূলা করবে। সেখানে বাঁধ দিয়ে পানি আটকে মাছ চাষ করা হচ্ছে। এই পানিতে ডুবে আমার মেয়ে মারা গেল। পরবর্তীতে আরও দু’তিনটি শিশু এ মাঠের পানিতে ডুবেছে, তবে আল্লাহতালা সেই শিশুদের বাঁচিয়েছেন। আমার মেয়েটাকে বাঁচাতে পারলামনা। আমি এর কোনো বিচার পাইনি। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোছা. ইয়াছমিন বেগম সাংবাদিকদের জানান, তিনিও চান এই খেলার মাঠে মাছ চাষ বন্ধ করতে। কিন্তু তিনি সেই প্রভাবশালীদের ক্ষমতার সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারছেন না। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. দুলাল মিয়া বলেন, শাহজাদাপুর গ্রামের আজিজুল মিয়া ও কয়েকজন মিলে এ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করছেন। তাদের কাছ থেকে এ ব্যাপারে আমরা কোন টাকা-পয়সা নেইনি। এ মাঠের পানি সরিয়ে ফেলতে আজকে একটি মিটিং করেছি। আগামি মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে এই খেলার মাঠ মাছ চাষ মুক্ত করবো।
সরাইল উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আবদুল আজিজ বলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা নিব।
সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এস এম মোসা সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি কেউই আমাকে জানাননি। এখন জেনেছি, অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
আরও পড়ুন