১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে নিখোঁজের ২দিন পর হাত পা বাধাঁ অবস্থায় অপহৃত ব্যক্তি জীবিত উদ্ধার

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৩:৪৯ অপরাহ্ণ , ২৯ জুন ২০১৯, শনিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

 

এম এ করিম সরাইল নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্কঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর হাত পা বাধাঁ অচেতন অবস্থায় মাসুদ রানা বাবু নামে এক ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার সরাইল- নাসিরনগর সড়কের সূর্যকান্দি এলাকার কেউর ভাঙ্গা ব্রিজ এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত মাসুদ রানা বাবু উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের পরমানন্দপুর গ্রামের জহির মিয়ার পুত্র। জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় পরমানন্দপুর নৌঘাট এলাকা থেকে মাসুদ রানা বাবু নিখোঁজ হয়। পর দিন বৃহস্পতিবার সকালে নিখোঁজ মাসুদ রানা বাবুর স্ত্রী প্রমনী বেগম থানায় প্রথমে জিডি ও পরে মামলা দায়ের করেন। এ ব্যপারে অভিযান চালিয়ে পুলিশ পরমানন্দপুর গ্রামের জবর আলীর ছেলে জাকির হোসেন ও আবজর আলীর ছেলে বাছির ভূইঁয়াকে গ্রেফতার করেন। এদিকে শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার সরাইল- নাসিরনগর সড়কের বড্ডাপাড়ায় হ্যালো মারওয়া হোটেল এণ্ড রেস্টুরেন্টে চলমান একটি অনুষ্ঠানে সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন ঠাকুর, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া বেগমসহ বিভিন্ন স্তরের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। এসময় জনৈক ড্রাইভার তাদের খবর দেন সূর্যকান্দি ব্রিজের নিকট ডাকাতি হচ্ছে। এ খবরে উপজেলা চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানসহ উপস্থিত লোকজন সেখানে ছূটেঁ গিয়ে হাত পা বাধাঁ ও মুখে কসটেব দেওয়া অবস্থায় এক ব্যক্তিকে দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। এ সময় তাকে উদ্ধার করে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে ভর্তি ও চিকিৎসা দেওয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে ও হাসপাতালে ছুঁটে গিয়ে উদ্ধার হওয়া ঐ ব্যক্তি নিখোঁজ মাসুদ রানা বাবু বলে সনাক্ত করে তার পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়। এ ব্যপারে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, অচেতন অবস্থায় রাত ৯টায় তাকে জরুরি বিভাগে আনা হয়। প্রাথমিক পরীক্ষায় দেখা যায় রোগীকে চেতনানাশক (ডায়াজিপাম) জাতীয় কোনো স্প্রে’র মাধ্যমে অজ্ঞান করা হয়েছে। ধস্তাধস্তির কারণে রোগীর শরীরের নানা অংশে সামান্য ফুলা জখম রয়েছে। বর্তমানে রোগী অজ্ঞান অবস্থায় আছে তবে ঝুঁকিমুক্ত। এ ব্যপারে সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মফিজ উদ্দিন ভূইঁয়া বলেন, শুক্রবার রাত পৌনে নয়টার দিকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুরের ফোনে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে হাত-পা বাঁধা এক ব্যক্তিকে উদ্ধারের পর তা নিখোঁজ বাবু বলে শনাক্ত করে পুলিশ। বাবুর জ্ঞান ফিরে আসলে তার জবানবন্দিতে সকল বিষয় জানা যাবে। এ ঘটনায় গ্রেফতার দুইজনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

February 2023
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728  
আরও পড়ুন