২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে ত্রি-স্টার রিসোর্ট, দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভীড়

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ , ১২ জুলাই ২০২২, মঙ্গলবার , পোষ্ট করা হয়েছে 2 years আগে

সরাইলে ত্রি-স্টার রিসোর্ট, দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভীড়

এম এ করিম সরাইল নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমঃ

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের ধরন্তী বিল আকাশীর মিনি কক্সবাজারখ্যাত পুটিয়া ব্রীজ এলাকায় দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। নবনির্মিত ত্রি-স্টার রিসোর্টকে কেন্দ্র করে এখানে বিনোদন প্রেমিদের উপচে পড়া ভীড় যেন দিন দিন ক্রমশঃ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঈদের দিন ও ঈদ পরবর্তী দিনগুলোতে পড়ন্ত বিকালে বিনোদন প্রেমী লোকজন সেখানে ভীড় করতে দেখা যায়। সরাইল- নাসিরনগর-লাখাই আঞ্চলিক সড়কের সরাইল কালিকচ্ছ বাজার থেকে পুটিয়া ব্রিজ পর্যন্ত প্রতিদিন বিকালে হাজার হাজার দর্শনার্থীদের যাতায়াতে মুখরিত থাকে। এতে কালিকচ্ছ বাজারসহ সড়কটির বিভিন্ন স্থানে প্রায়ই যানঝট লেগে থাকে।
ঈদের ছুটিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন উপজেলা ছাড়াও ভৈরব, নরসিংদী ও আশ-পাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ ঘুরতে আসে সরাইলের এই মিনি কক্সবাজারে।
জাতীয় পার্টি নেতা হাফেজ আলী নেওয়াজ, ইব্রাহিম মৃধা ও জিহাদ আহমেদ নামের তিন বন্ধু মিলে সেখানে প্রথমবারের মতো গড়ে তুলছেন আধুনিক মানের একটি রিসোর্ট এন্ড রেস্টুরেন্ট। বিনোদন প্রেমিদের জন্য এটি আরও বাড়তি আনন্দের মাত্রাযুক্ত করেছে।
এখানে আসা ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের কোথাও বসার তেমন কোনো ব্যাবস্থা না থাকায় ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে উঠেছে একটি ত্রি-স্টার রিসোর্ট। যদিও সম্পূর্ণ কাজ এখনো শেষ হয়নি বলে জানিয়েছেন রিসোর্ট এর মালিকপক্ষ।
সরজমিনে রিসোর্ট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, মানুষের উপচে পড়া ভীড়। রিসোর্টের সামনে থাকা নিরাপত্তা কর্মীরা জানান তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভীড়ের কারণে। তারা এখানে প্রবেশ মূল্য ধরেছেন ২০ টাকা, সন্ধ্যা পর্যন্ত রিসোর্টটিতে দর্শনার্থীর সংখ্যা প্রায় দশ হাজার ছাড়িয়েছে বলে জানায় মালিক পক্ষের লোকজন।
রিসোর্টের কর্মচারীরা জানায়, ক্রেতাদের খাবার দিয়ে তারা কুলাতে পারছেন না। ধারণার চেয়েও বেশী বিক্রি হয়েছে সেখানে। রিসোর্টিতে এক সংগে ১২৮ জন বসতে পারেন।
এখানে খাবারের তালিকায় রয়েছে দেশীয় নাস্তা, বাংলা-চাইনিজ খাবার, অ্যারাবিয়ান হেফসাসহ ভিন্ন স্বাদের খাবার। নামাজের জন্য রয়েছে আলাদা জায়গা। রাতের আলোক সজ্জায় পাল্টে দেয় গোটা সড়কের চিত্র।
দর্শনার্থীরাও খুশি এমন একটি রিসোর্ট করায়। আরো কয়েকটি রিসোর্ট এখানে হলেও দর্শনার্থীর সংখ্যা ক্রমশঃ আরো বাড়বে বলে ধারণা করছেন এখানে ঘুরতে আসা বিনোদন প্রেমি লোকজন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
আরও পড়ুন