২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল আজাদ হত্যা মামলা প্রত্যাহার ও পুনঃ তদন্তের দাবি

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৬:৫১ অপরাহ্ণ , ৯ জুলাই ২০২৩, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 10 months আগে

সরাইলে আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল আজাদ হত্যা মামলা প্রত্যাহার ও পুনঃ তদন্তের দাবি

এম এ করিম সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া)

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি এ কে এম ইকবাল আজাদ হত্যা মামলা প্রত্যাহার ও পুনঃ তদন্তের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মহান জাতীয় সংসদে দেওয়া সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম শিউলি আজাদ এর বক্তব্যকে মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট দাবি করে উক্ত মানববন্ধনে প্রতিবাদ জানানো হয়। মানববন্ধন শেষে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল হয়। পরে উপজেলা সদরে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম চত্বরে সমাবেশ হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে রোববার (৯ জুলাই) সকাল ১১ টায় সরাইল-নাসিরনগর সড়কের হাসপাতাল মোড় থেকে মানবন্ধন শুরু হয়ে স্থানীয় বালিকা বিদ্যালয়ের সামনের সড়ক হয়ে উপজেলা সদরের বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম চত্বর পর্যন্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় নারী- পুরুষসহ হাজার হাজার লোকজন উক্ত মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন। মানববন্ধন চলাকালে উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়কে দীর্ঘ যানঝটের সৃষ্টি হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সরাইল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিক উদ্দিন ঠাকুর বলেন, এ কে এম ইকবাল আজাদ আমাদের সমসাময়িক নেতা ছিলেন। যারা ইকবাল আজাদকে হত্যা করেছে প্রকৃত খুনিদের বিচার আমরাও চাই। এই হত্যাকান্ডকে কেন্দ্র করে বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মামলার আসামী করে কতিপয় লোক আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হয়েছে। তারা ফাঁকা মাঠে নেতা হতে চাই। তাই ষড়যন্ত্র করে তারা তৎকালীন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমাকেসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও হাঁপানিয়া ক্যাম্পের কমান্ডার, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ২ বার নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমত আলী, ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ঈদ্রিছ আলী, সদর ইউনিয়নের ৩ বারের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জব্বার, আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান ছাদেকুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজ আলী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাফিজুল আসাদ সিজারসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের ষড়যন্ত্রমূলকভাবে উক্ত মামলায় আসামী করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি সংরক্ষিত মহিলা আসন এর সংসদ সদস্য উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম শিউলি আজাদ তার স্বামী ইকবাল আজাদ, ভাসুর ও শশুরকে হত্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে মহান সংসদে মিথ্যা ও বানোয়াট বক্তব্য দিয়েছেন৷

মহিলা আসনের এমপির এই বক্তব্যকে মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত দাবি করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, এমপির ভাসুর হুমায়ুন আজাদ বাড়ি থেকে কুমিল্লা যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান যা এলাকাবাসীদের মাঝে চাউর রয়েছে এবং উনার পরিবারের লোকজনও জানেন।

তিনি বলেন, ইকবাল আজাদ হত্যাকান্ডের মিথ্যা মামলায় আমাদের হয়রানী করা হচ্ছে। তার স্বামীর প্রকৃত খুনিদের বাদ দিয়ে সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ২৯ জনকে আসামী করে মামলার মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করার একটি হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের অপচেষ্টা করছেন। ইকবাল আজাদ হত্যা মামলাটি পূনঃ তদন্ত ও হত্যাকান্ডে জড়িত দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা এবং নির্দোষ ব্যাক্তিদের অব্যাহতি প্রদানের দাবি জানান তিনি।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল জব্বার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমত আলী, ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী মাহফুজ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি হাজী ইকবাল হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাফিজুল আসাদ সিজার ও অন্যান্য নেতা-কর্মীসহ সহস্রাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
আরও পড়ুন