২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

EN

সরাইলে অজ্ঞান পার্টির খপ্পর, এক মহিলার ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, স্বর্নের চেইন ও মোবাইল লুট

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৪:৫৯ অপরাহ্ণ , ২৬ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 1 year আগে

সরাইলে অজ্ঞান পার্টির খপ্পর, এক মহিলার ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, স্বর্নের চেইন ও মোবাইল লুট

এম এ করিম সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) সংবাদদাতাঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে জনতা ব্যাংক থেকে উত্তোলণ করা নগদ ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকাসহ নেকজান বেগম(৫০) নামে এক মহিলার সাথে থাকা ১ টি স্বর্নের চেইন ও মোবাইল লুটে নিয়েছে অজ্ঞান পার্টি।  বৃহস্পতিবার (২৬ মে) দুপুর সাড়ে ১২ টা থেকে ১ টা ৩০ মিনিট এর ভেতরে উপজেলা সদরের বিকাল বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারা নেকজান বেগম নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের মহিষবেড় পাগলা পাড়ার প্রবাসী লাফু মিয়ার স্ত্রী।
এ ব্যপারে ভুক্তভোগী নেকজান বেগম বলেন, আমার প্রবাসী স্বামীর পাঠানো ১ লক্ষ ৭০ হাজার  টাকা আজ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় সরাইল জনতা ব্যাকের আমার একাউন্ট থেকে উত্তোলন করি। ব্যংকের ভেতরে থেকেই আমার এক বিয়াই এর পাওনা  ৫০ হাজার টাকা দিয়ে দেই। বাকী ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা আমার সাথে থাকা ভ্যানেটি ব্যাগে রেখে সরাইল বাজারের দিকে যেতে থাকি। তিনি আরও বলেন, সরাইল বিকাল বাজারের বিসমিল্লাহ ওয়েল ভান্ডারের কাছাকাছি যাওয়ার পর পেছন থেকে অজ্ঞাত নামা আনুমানিক একজন ৫০ বছরের ও অপরজন ১৮ বছরেরসহ দুই জন লোক আমার কাছে এসে কাগজে মোড়ানো একটি প্যাকেট দেখিয়ে বলতে থাকে চাচী আমরা একটা বিপদে পড়েছি। একটা মাল নিয়ে এসেছিলাম মিষ্টির দোকানে বিক্রি করতে কিন্তু  বিক্রি করতে পারছি না। এ কথা শুনে হতভম্ভ হয়ে আমি বলতে থাকি আমি কি করব। এ কথা বলার পর পর আমার স্বাভাবিক বোধ শক্তি হারিয়ে ফেলি। পরে ঐ দুই জন লোকের পিছু পিছু আমি কিছু দূর যাওয়ার ফাঁকে কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমার টাকার ব্যাগ, গলায় থাকা আধা-ভরি ওজনের স্বর্নের চেইন ও আমার মোবাইল তারা লুট করে নিয়ে যায়।  আস্থে আস্তে আমার কিছুটা স্বাভাবিক জ্ঞান ফিরে আসলে আমি বড়দেওয়ান পাড়া কবরস্থানের কাছের রাস্তায় তখন আছি মনে করতে পারি।এ সময় কাগুজে মোড়ানো একটি প্যাকেট আমার হাতে থাকলেও  আমার টাকাসহ ভ্যানেটি ব্যাগ, গলায় স্বর্নের চেইন ও মোবাইল সাথে  না দেখতে পেয়ে হতভম্ব হয়ে পড়ি। এ সময় কাগুজের ব্যাগটি খোলে আধা কেজি ওজনের একটি হুইল পাউডারের প্যাকেট দেখতে পায়। এতে মানসিকভাবে আমি ভেঙ্গে পড়ি এবং সরাইল বাজারের দিকে হাটতে হাটতে আত্বীয়-স্বজনকে খোঁজার চেষ্টা করি। পরে আমার আত্বীয় স্বজন এসে আমাকে নিয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, প্রবাসী স্বামীর পাঠানো এতগুলো টাকা, স্বর্নের চেইন ও মোবাইল অজ্ঞাত নামা দুই ব্যক্তি আমাকে  জ্ঞান হারা করে লুটে নেওয়ায় আমি মানসিকভাবে মর্মাহত। সংসারের বেহাল দশার কথা ভেবে এখন আমি দিশেহারা। এ ব্যপারে আমি আইনের আশ্রয় নেব।
এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হলে বিকাল বাজারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ সময় বিকাল বাজারের ড্রেস পয়েন্ট দোকানের স্বত্ত্বাধিকারি মোঃ পাবেল মিয়া বলেন, সরাইল বাজারে এ ধরনের ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। গত ৪/৫দিন আগে সরাইল বাজারের কবুতর হাটা থেকে সাগরদীঘি এলাকার জীবন মিয়ার আম্মাকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জিম্মি করে দুইজন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি স্থানীয় মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভেতরে নিয়ে ঐ মহিলার গলায় থাকা  ১ ভরি ওজনের স্বর্নের চেইন নিয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, বাজারের সিসি ক্যামেরা ট্রায়াল করে এ চক্রের সাথে জড়িত মূল হোতাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের প্রতি জোড় দাবি জানাচ্ছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

September 2023
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930  
আরও পড়ুন